ইসলামপুরে ভূয়া সার্টিফিকেটধারী শহিদুল্লাহ গ্রেফতার

101
ইসলামপুরে ভূয়া সার্টিফিকেটধারী শহিদুল্লাহ গ্রেফতার

ইসলামপুর (জামালপুর) প্রতিনিধি

জামালপুরের ভূয়া মুক্তিযোদ্ধার সন্তান পরিচয় সনদে উপসহকারী কৃষি অফিসার পদে চাকুরী করে সরকারী টাকা আত্মসাত ও ভূয়া বি.বি.এ সহ জাল সনদে চাকুরী’র প্রতারণা অভিযোগে মামলা পিবিআই তদন্তে প্রমাণিত হওয়ায় ইসলামপুর উপজেলার ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা সন্তান শহিদুল্লাহকে বুধবার বিকালে পুলিশ গ্রেফতার করেছে।
জানা গেছে, আটককৃত ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা সন্তান ও ভূয়া সার্টিফিকেটধারী শহিদুল্লাহ ইসলামপুর উপজেলার চিনাডুলী ইউনিয়নের ডেবরাইপেচ গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে। শহিদুল্লাহ প্রথমে তার পিতার নামের সাথে মিল থাকা অন্যজনের মুক্তিযোদ্ধার পরিচয় দেখিয়ে উপসহকারী কৃষি অফিসার পদে চাকুরী নিয়ে গত ২৭/১২/২০১১ইং সালে দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা কৃষি অফিসে যোগদান করেন। এর প্রায় ৬বছর উক্ত ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা সন্তানের পরিচয় জানা জানি হলে প্রশাসনিক শাস্তির ভয়ে চাকুরী থেকে স্বেচ্ছায় অব্যাহতি চাইলে কর্তৃপক্ষ গত ১৮/০৯/২০১৮ইং তারিখে তাকে উক্ত চাকুরী থেকে অব্যাহতি দেন। চাকুরী ছেড়ে দিলেও প্রশাসনের চোঁখকে ফাঁকি দিয়ে ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সন্তানের পরিচয়ে ৬বছর প্রতারণা করে চাকুরী নিয়ে সরকারের প্রায় ১৮লক্ষ টাকা বেতন ভাতা তুলে আত্মসাত করেন।
এখানেই শেষ নয় চাকুরী থেকে অব্যাহতি নিয়ে আবারও জালিয়াতি আশ্রয় নিয়ে ভূয়া শিক্ষাগত যোগ্যতার একই সনের দুই প্রতিষ্ঠানে ভূয়া ডিগ্রীর সার্টিফিকেট ও নিববন্ধনও নেয় শহিদুল্লাহ। দারুল এহসান ও এশিয়ান ইউনির্ভাসিটি অব বাংলাদেশ থেকে পাশের সন ২০১২ইং দেখিয়ে একই শিক্ষা বর্ষে পাশ দেখিয়ে একই বিষয়ে দুইটি জাল সার্টিফিকেট সংগ্রহ করে । সেই জাল সার্টিফিকেটে বি.বি.এ অনার্স পাস দেখিয়ে ব্যবস্থাপনা বিষয়ে প্রভাষক (সাধারণ) ব্যবস্থানা পদে ইসলামপুরের ডেবরাইপেচ টেকনিক্যাল এন্ড বিএম কলেজে চাকুরী নেওয়ার পায়তারা করে। এসব বিষয় জানতে পেরে ডেবরাইপেচ টেকনিক্যাল এন্ড বিএম কলেজে কলেজের ম্যানেজমেন্ট প্রভাষক মোজাম্মেল হক বাদী হয়ে জালিয়াতিবাজ শহিল্লাহ ও তার পিতা ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদধারী আবুল কাশেমকে অভিযোক্ত করে জেলা সহকারী জজ আদালত ইসলামপুরে একটি মামলা দায়ের করেন । যার ইসলামপুর থানা পিটিশন মামলা নং-১৩২(১)২০। উক্ত মামলা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন পিবিআই তদন্ত করে সত্যতা পাওয়ায় ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সনদ ও সার্টিফিকেটধারী শহিদুল্লাহ ও তার পিতা আবুল কাশেমের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী ওয়ারেন্ট হলে পুলিশ ১৯জানুয়ারী বুধবার বিকালে জামালপুর শহরের রেলগেট এলাকা থেকে পলাতক শহিদুল্লাহকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করে।

print