দশমিনায় গ্রামীন সড়কের বেহাল দশা ভোগান্তিতে ২ ইউনিয়নের বাসিন্দা

161
দশমিনায় গ্রামীন সড়কের বেহাল দশা ভোগান্তিতে ২ ইউনিয়নের বাসিন্দা

নাসির আহমেদ, দশমিনা (পটুয়াখালী)
পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলার দশমিনা-পটুয়াখালী মহাসড়কের সংযোগ সড়ক বর্তমানে বেতাগী-সানকিপুর ইউনিয়নের মাছুয়াখালী গ্রামের প্রধান সড়কের উত্তর দিকে ৩১ নং দক্ষিন আদমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় হতে ৭নং এবং ৮নং ওয়ার্ডের মধ্যে দিয়ে সড়কটি অবস্থিত। সড়কটি উপজেলার বেতাগী-সানকিপুর ও বহরমপুর এই ২ ইউনিয়নের মধ্যে অবস্থিত হওয়ায় এর দায়-দ¦ায়িত্ব কেউ নিতে চায় না। সড়কটির আধা কিলোমিটার পর্যন্ত বেতাগী-সানকিপুর ইউনিয়নের মাছুয়াখালী এবং বাকি অংশ বহরমপুর ইউনিয়নের মধ্যে পড়েছে। বর্তমানে সড়কটি বেহাল দশায় পরিনত হয়েছে। সড়কটি দেখলে যেন মনে হয় ধানক্ষেত।
জানা যায়, বহরমপুর ইউনিয়নের মধ্যেই সড়কটি অবস্থান হলেও স্থানীয় চেয়ারম্যান এখন পর্যন্ত কোন উদ্যোগ গ্রহন করছে না। এই সড়ক দিয়ে ইউনিয়নের ৫,৬,৭ ও ৮ নং ওয়ার্ডের কয়েক হাজার বাসিন্দা যাতায়াত করে থাকে। এই সড়কটি ১২১ নং দক্ষিন আদমপুর সোমবাড়িয়া হাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় দিয়ে ৫ নং ওয়ার্ডের সাবেক সানু মেম্বারের বাড়ির সামনে দিয়ে রাস্তাটি মোল্লারহাট সড়কের সাথে গিয়ে সংযুক্ত হয়। প্রায় ৭ কিলোমিটার এই কাঁচা সড়কটি পাকা করার জন্য এলাকাবাসী দাবী জানালেও কোন কাজ হয়নি। এই সড়কটি দিয়ে ৪ ওয়ার্ডের বাসিন্দাসহ শিক্ষার্থীরা উপজেলা সদরে যাতাযাত করে থাকে। চলতি বর্ষা মৌসুমে সড়কটির এমন বেহাল দশা কেউ ঘর থেকে বের হতে চায় না। এলাকার বাসিন্দা ও বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদ ও বঙ্গবন্ধু স্মৃতি পাঠাগার ছাত্র ফেডারেশন বাংলাদেশ এর সাধারন সম্পাদক মোঃ আল আমিন হাওলাদার জানান, এই সড়কটি উপজেলা শহরে চলাচলের জন্য একমাত্র পথ। এই সড়ক দিয়ে শত শত জনগন চলাচল করলেও এবং চরম ভোগান্তিতে থাকলেও কেউ কোন উদ্যোগ নিচ্ছে না। এলাকাবাসী সড়কটিকে পাঁকা করার জন্য দাবি জানিয়েছে।

print