দশমিনায় ঝুঁকিপূর্ন ব্রিজগুলো সংস্কারের উদ্যোগ নেই

56
উপজেলা সদরের দশমিনা-চরহোসনাবাদ ব্রিজটি এখন মরন ফাঁদে পরিনত হয়েছে

নাসির আহমেদ, দশমিনা (পটুয়াখালী)
পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলায় আন্তঃ ইউনিয়ন সড়কে এবং গ্রামীন সংযোগ খালের উপর নির্মিত ব্রিজগুলোকে যেন দেখার কেউ নেই। এলাকাবাসীর চরম ভোগান্তির কথা বিবেচনা করে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ যেন দেখেও না দেখার ভান করছে। ব্রিজগুলো ঝুঁকিপূর্ন জেনেও এলাকাবাসী কাজের প্রয়োজনে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে।
উপজেলায় প্রায় ২৫টি ব্রিজ দীর্যদিন যাবত মেরামত না করার কারনে ঝুঁকিপূর্ন হয়ে পড়েছে। ব্রিজগুলো সংস্কারের অভাবে এবং জনপ্রতিনিধিরা খেয়াল না দেয়ায় সাধারন জনগনের চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। চলাচলের অযোগ্য এসব ব্রিজগুলো এখন মরনফাঁদে পরিনত হয়েছে। উপজেলার ৬টি আন্তঃ ইউনিয়ন সড়কে নির্মিত লোহার ও কাঠের ব্রিজগুলো মেরামত না করায় জনসাধারনের মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।
জানা যায়, উপজেলার লক্ষèীপুর-আরজবেগী-রনগোপালদী সড়কে ৭টি, নলখোলা-বেতাগী সানকিপুর সড়কে ২টি, চরহোসনাবাদ-আমতলা-কালাইয়া সড়কে ৪টি, পূজাখোলা-হাজিরহাট সড়কে ১টি, চরহোসনাবাদ-নেহালগঞ্জ-আদমপুর সড়কে ৪টি ব্রিজ ঝুঁকিপূর্ন হবার পাশাপাশি তা এখন মরন ফাঁদে পরিনত হয়েছে। জনদূর্ভোগের ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ও জনপ্রতিনিধিদের কোন মাথা ব্যথা নেই। তারা কেউ এগিয়ে আসছে না।
স¦াধীনতা পরবর্তী ব্রিজগুলো নির্মান করা হলেও বর্তমানে ব্রিজগুলোর সংযোগ সড়কের মাটি, পিলার দেবে ও রেলিং ভেঙ্গে পড়ে নড়ে বড়ে হয়ে গেছে। ব্রিজের উপর মানুষজন উঠলেই দুলতে থাকে। ফলে যানবাহন চলাচল করা তো দূরের কথা মানুষের পক্ষেই চলাচলের জন্য ব্রিজগুলো ঝুঁকিপূর্ন হয়ে পড়েছে। এব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কোন কার্যকরী পদক্ষেপ নিচ্ছে না।

print