নারায়ণগঞ্জে ২ জঙ্গী গ্রেফতার

71

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

র‌্যাব-১১ এর অভিযানে নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁও থেকে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠন আনসার আল ইসলাম (আনসারুল্লাহ বাংলা টিম-এবিটি) এর ০২ জন সক্রিয় সদস্য গ্রেফতার।

র‌্যাব-১১ এর একটি আভিযানিক দল গত ২১ জানুয়ারি ২০২১ তারিখ রাত ২২৩০ ঘটিকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁও থানাধীন আষাঢ়ের চর এলাকা হতে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠন আনসার আল ইসলাম (আনসারুল্লাহ বাংলা টিম-এবিটি) এর সক্রিয় সদস্য ১। মোঃ কামরুল হাসান ভুইয়া (২৫) ও ২। মোজাহিদ হাসান (২০)’কে গ্রেফতার করে। এ সময় গ্রেফতারকৃত আসামীদের নিকট থেকে মোবাইল ফোন, উগ্রবাদী বই ও উগ্রবাদী লিফলেট জব্দ করা হয়।
গ্রেফতারকৃত আসামীদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ ও অনুসন্ধানে জানা যায় যে, গ্রেফতারকৃত আসামী ১। মোঃ কামরুল হাসান ভুইয়া (২৫), পিতা-মোঃ ময়নাল হোসেন ভুইয়া ও ২। মোজাহিদ হাসান (২০), পিতা-মোঃ জাহাঙ্গীর আলম। এদের বাড়ির স্থায়ী ঠিকানা সাং-গোপালনগর, পোষ্ট-রামমোহন, থানা-বরুড়া, জেলা-কুমিল্লা। আসামী মোঃ কামরুল হাসান ভুইয়া (২৫) জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলা বিভাগে পড়ালেখা করা অবস্থায় জঙ্গিবাদে জড়িয়ে পড়ে এবং পরবর্তীতে এসব পড়ালেখা কে হারাম মনে করে বাড়ি ফিরে আসে ও পুরোপুরিভাবে জঙ্গি কার্যক্রম চালানোর সিদ্ধান্ত নেয়। অপর আটককৃত ২। মোজাহিদ হাসান (২০) সিটি ইউনিভার্সিটি, ঢাকায় কম্পিউটার প্রকৌশল বিভাগে পড়ালেখা করে। দেশে ইসলামী খিলাফত প্রতিষ্ঠা করাই এদের চূড়ান্ত লক্ষ্য বলে জানায়। এ লক্ষ্যে তারা নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংগঠন আনসার আল ইসলাম (আনসারুল্লাহ বাংলা টিম-এবিটি) তে যোগদান করে এবং পরবর্তীতে সংগঠনের নারায়ণগঞ্জ ও কুমিল্লা এলাকার মাসুল হিসেবে দায়িত্ব পায়। অন্যান্য সদস্যদের নিয়ে বড় ধরণের নাশকতামূলক কর্মকান্ডের পরিকল্পনা করে আসছিলো। এছাড়া সংগঠনের সদস্য সংখ্যা বাড়ানোর জন্য টেলিগ্রাম আইডি, প্রোটেক্টেড টেক্সট, ইমো, হোয়াটসঅ্যাপ, টুইটার, ভুয়া ফেইসবুক আইডি, ফেইসবুক গ্রুপ, ম্যাসেঞ্জার ইত্যাদি ব্যবহার করে শিক্ষিত ও সমমনা তরুণদের উগ্রবাদী মতাদর্শে উদ্বুদ্ধ করে। গ্রেফতারকৃত আসামী ১। মোঃ কামরুল হাসান ভুইয়া (২৫) ও ২। মোজাহিদ হাসান (২০), আরও জানায় যে, তারা কুমিল্লা, নারায়ণগঞ্জ, ঢাকা ও এর আশে পাশের বিভিন্ন স্থানে বেশ কয়েকবার স্বশরীরে ও অনলাইনে মিলিত হয়ে জেল হতে আটককৃত সদস্যদের মুক্ত করা, নাস্তিক ব্লগারদের হত্যা, সরকারী গুরুত্বপূর্ণ ব্যাক্তিদের হত্যা ও সংগঠনের জন্য তহবিল সংগ্রহ করে বিভিন্ন ধরণের নাশকতামূলক কর্মকান্ড করার অপতৎপরতা চালিয়ে আসছিলো।

গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

print