রাতের আধারে দোকান ঘর ভেঙ্গে দিলেন চেয়ারম্যান

26
রাতের আধারে দোকান ঘর ভেঙ্গে দিলেন চেয়ারম্যান

হিলি প্রতিনিধি

দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলার ভাদুড়িয়া বাজারের নির্মিত ৫টি দোকান ঘর রাতের আধারে ভাড়াটিয়া লোকজন দিয়ে ভেঙ্গে দেওয়ার অভিযোগ ওঠেছে ৬নং ভাদুড়িয়া ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান আসমান জামিনের বিরুদ্ধে। এ বিষয়ে নবাবগঞ্জ থানায় ২০ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত ৪০/৪২ জনের নামে এজাহার দায়ের করেছেন উপজেলার শিমর গ্রামের মৃত তছলিম উদ্দীনের ছেলে ভুক্তভোগী জাহাঙ্গীর আলম। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) অশোক কুমার চৌহান।

 

এজাহারে উল্লেখ করে যে, উক্ত সম্পত্তি তার পিতার নামীয় কবুলিয়ত দলিল মূলে দীর্ঘ দিন যাবত ভোগ দখল করছে জাহাঙ্গীর আলম। কিন্তু চেয়ারম্যান আসমান জামিন প্রভাবশালী ও জনপ্রতিনিধি হওয়ায় ক্ষমতার অপব্যবহার করে গত শুক্রবার (২ এপ্রিল) রাত আনুমানিক ১০টার সময় ১নং আসামী আসমান জামিনের হুকুমে নির্মিত ইটের দেওয়াল ও টিনের ছাউনী বিশিষ্ট ৫টি দোকান ঘর ভেঙ্গে দেয়, এতে তার ১০ লক্ষ টাকার ক্ষতিসাধন হয়েছে, এছাড়াও নির্মিত দোকান ঘরে রাখা ৩০ মন রড এবং ৫০ বস্তা সিমেন্ট আসামীর যোগসাজসে আসামীদের সহিত আনা পাওয়ারট্রিলার যোগে চুড়ি করে নিয়ে যায় বলে জাহাঙ্গীর এজাহারে উল্লেখ করেন।

 

উপরোক্ত বিষয়ে ১নং আসামী আসমান জামিনের সাথে ফোনে কথা বললে তিনি জানান, রাতের আধারে যে দোকান ঘরগুলো ভেঙ্গে দেওয়া হয়েছে সেই জায়গাটি তার বাবার নিজস্ব সম্পত্তি। জায়গাটির সমস্ত কাগজ পত্র তাদের রয়েছে।

নবাবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) অশোক কুমার চৌহান জানান, ভাদুড়িয়া বাজারে নির্মিত দোকান ঘর ভাঙ্গার বিষয়ে জাহাঙ্গীর আলম নামে একজন এজাহার দায়ের করেছেন। আমরা বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহন করবো।

print