শামীমের আস্থাভাজন পরিদর্শক সরাফত প্রত্যাহার

1212

শাহাদাৎ হোসেন ভূঁইয়া

নারায়ণগঞ্জ জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) এর ইন্সপেক্টর মুহা. সরাফত উল্লাহকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। তিনি সাংসদ শামীম ওসমানের অত্যন্ত আস্থাভাজন ও আজ্ঞাবহ বলে সূত্র জানিয়েছে। বর্তমান পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদের সাথে শামীম ওসমানের বনিবনা না হওয়ায় শেষ রক্ষা হলো না সরাফত উল্লাহর। তাকে নারায়ণগঞ্জের বেশিরভাগ নেতাকর্মীগন দুলাভাই বলে ডেকে থাকেন। তিনি নারায়ণগঞ্জের শীর্ষ সন্ত্রাসী অগা মিঠুর বোন জামাই। তাই নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন ব্যবসায়ীদের মুঠোয় পুরে বিপুল অর্থ সম্পদের মালিকও বনে গেছেন। বিতর্কিত কর্মকর্তা হিসেবে তিনি নারায়ণগঞ্জে বেশ পরিচিত।

রোববার ডিবি থেকে প্রত্যাহার করে নগরীর মাসদাইরে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন জেলা পুলিশের একটি সূত্র। তবে তাকে কি কারনে প্রত্যাহার করা হয়েছে তা জানা যায়নি।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশে (ডিবি) যোগদানের আগে তিনি জেলা পুলিশের বিশেষ শাখায় ডিআইও-১ হিসেবে কর্মরত ছিলেন। সেখান থেকে তিনি ডিবিতে যোগ দেন।

এরও আগে তিনি সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হিসেবে কর্মরত ছিলেন। সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় কর্মরত অবস্থায় ২০১৭ সালের ২৩ মে মাদকদ্রব্য দিয়ে ফাঁসানো, ঘুষ গ্রহণ ও বিধবা নারীর জমি দখলে সহায়তার অভিযোগে তিনিসহ আরো দুই কর্মকর্তাকে ক্লোজ করে মাসদাইরে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়।

এ ছাড়াও ২০১৬ সালে ১৮ ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বর্তমান মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় ওসি হিসেবে কর্মরত সরাফত উল্লাহর প্রত্যাহার দাবি করেছিলেন ।

ওই সময় আইভী বলেন, সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসির বিগত দিনের কর্মকান্ড লক্ষ করলে মনে হয়, ওনার জন্য নেতাকর্মীদের সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে। তাই সিদ্ধিরগঞ্জের ওসির পরিবর্তন চাই। এটা ওই এলাকার আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও জনগণের দাবি।

তিনি আরও অভিযোগ করেন, ওসি সরাফত উল্লাহ সেখানে বিতর্কিত ভূমিকা পালন করছেন।

print