সিদ্ধিরগঞ্জে শ্রমিকলীগ নেতার সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে চাঁদাবাজ মাদক ব্যবসায়ীদের মিলন মেলা

92
সিদ্ধিরগঞ্জে শ্রমিকলীগ নেতার সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে চাঁদাবাজ মাদক ব্যবসায়ীদের মিলন মেলা

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি
সিদিদ্ধরগঞ্জে নবগঠিত জাতীয় শ্রমিকশীগের এক নেতার সংবর্ধনা অনুষ্ঠান চাঁদাবাজ মাদক ব্যবসায়ীদের মিলন মেলায় পরিণত হয়েছে। শনিবার (৩১ অক্টোবর) বিকেল ৪ টায় মিজমিজিতে আওয়ামীলীগ নেতার বাসভবনে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে চাঁদাবাজ মাদক ব্যবসায়ীদের তৎপরতা ও প্রথম সারিতে অবস্থান করায় উপস্থিত অনেকই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।
জানা গেছে, আদমজী চালু সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি শাহাব উদ্দিন মিয়াকে নবগঠিত জাতীয় শ্রমিক লীগের সহ-সভাপতি নির্বাচিত করায় সিদ্ধিরগঞ্জ আদমজী আঞ্চলিক শ্রমিকলীগের উদ্যোগে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন। র‌্যাবের হাতে গ্রেপ্তারকৃত চাঁদাবাজি মামলার আসামি শ্রমিকলীগ নেতা আব্দুস সামাদ বেপারীর সভাপতিত্বে থানা আওয়ামীগ সভাপতি মজিবুর রহমানের মিজমিজিস্থ বাসভবনে এ অনুষ্ঠানে চাঁদাবাজ এবং একাধিক মাদক মামলার আসামিদের উপস্থিতি ছিল লক্ষনীয়।

সিদ্ধিরগঞ্জে শ্রমিকলীগ নেতার সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে চাঁদাবাজ মাদক ব্যবসায়ীদের মিলন মেলা

অনুষ্ঠানে থানা আওয়ামীলীগ সভাপতি মজিবুর রহমান প্রধান অতিথি ও সাধারণ সম্পাদক হাজি ইয়াছিন মিয়া, নাসিক ৭ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলী হোসেন আলা বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকলেও অনুপস্থিত ছিলেন, জাতীয় শ্রমিকলীগের সাবেক সভাপতি আব্দুল মতিন মাষ্টার, থানা যুবলীগের সভাপতি হাজি মতিউর রহমান মতি। সম্প্রতি চাঁদাবাজির অভিযোগে র‌্যাবের হাতে গ্রেপ্তার হয়ে জেল হাজত থেকে জামিনে আসা শ্রমিকলীগ নামধারী তারিকুল ইসলাম, চাঁদাবাজি মামলার আসামি বড় লিটন, জুলহাস উদ্দিন লিটন, মাদক ব্যবসায়ী সিকিম আলী, সেলিম খানসহ বিতর্কিতদের তৎপরতায় বিস্মিত হয়েছেন মূলধারার নেতাকর্মীরা। এছাড়াও থানা এলাকার বিভিন্ন সেক্টরের চাঁদাবাজি নিয়ন্ত্রন ও মাদব্যবসায়ীরা ছিল দর্শক সারির প্রথমে। এনিয়ে চরম হাতাশা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেন ত্যাগী নেতারা।
সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে থানা স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা আমিনুল হক ভূঁইয়া রাজু ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, দীর্ঘদিন ধরে যারা আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত তারা আজ অবহেলিত। বিভিন্ন নাশকতা মামলার আসামি বিএনপি জামায়াত থেকে অনুপ্রবেশকারি হাইব্রিডদের দাপটে সত্যিকারের আওয়ামীগ নেতাকর্মীরা কোণটাসা। বিভিন্ন স্থানে এমন লোকের পোষ্টার ব্যানার ঝুলছে যাদেরকে থানা আওয়ামীলীগের শীর্ষ নেতারাই চিনেনা। আসলে তারা কারা। বিষয়টি গুরুত্বের সাথে দেখার জন্য তিনি শীর্ষনেতাদের প্রতি অনুরোধ জানান।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একনেতা জানান, অনুষ্ঠান শুরুতে লোকের উপস্থিতি ছিল উল্লেখ যোগ্য। অনেক নেতাকর্মীও ছিলেন। চাঁদাবাজ আর মাদক ব্যবসায়ীদের নেতৃত্বে কিশোরগ্যাং হিসেবে পরিচিত বখাটেদের একটি মিছিল অনুষ্ঠান স্থলে এসে ফুলের তোরা দিয়ে প্রথম সারিতে আসন দখল করার পর থেকেই ক্ষোভে অধিকাংশ নেতাকর্মী সভাস্থল ত্যাগ করে চলে যায়।

print